স্ট্রিট ম্যাজিশিয়ান হিসেবে বহুল পরিচিতি রাজু

রাজুকে দেখলে মনে হবে খুবই সাধারণ ও সাদামাটা একজন মানুষ।সম্ভবত তার এই সহজ সরল ব্যক্তিত্ব প্রদর্শনই হচ্ছে তার ম্যাজিকের আসল রহস্য । বর্তমানে স্ট্রিট ম্যাজিশিয়ান হিসেবে বহুল পরিচিতি ও খ্যাতি থাকলেও তিনি একজন মাইক্রোবায়োলজিস্ট, দুর্দান্ত চিএশিল্পী ,অভিনেতা , ফিল্ম মেকার ও বিজনেস বিশেষজ্ঞ। ছোটবেলা থেকে মানুষকে রহস্যের জালে ফেলে তাঁদের মনে একটা পরাবাস্তব জগত তৈরি করা তার বিশেষ পছন্দ । প্লেইং কার্ডস, মেন্টালিজম এবং এন্ডুরেন্স আর্ট দিয়ে মানুষকে রহস্য ও ধাধায় ফেলতে ফেলতে হয়ে যান দেশের অন্যতম সেরা ম্যাজিশিয়ান। তিনি বেশ কয়েকটা নাটকে ও টিভিসিতে দূর্দান্ত অভিনয় করে প্রমাণ করেছেন তিনি অভিনয়েও কম পারদর্শী নন।তার অভিনীত প্রথম নাটক ছিল এক্স ওয়াই জেড রিটান্স সম্প্রতি তার অভিনীত ‘দেশ আমার দোষ আমার’ শিরোনামে টিভি কমার্শিয়াল ব্যপক সাড়া ফেলতে সক্ষম হয় যা তাকে পৌঁছে দেয় অভিনয় জগতে অন্যরকম উচ্চতায় । যাদুশিল্পে নিত্য নতুন কৌশল প্রয়োগের মাধ্যমে ছোট বড় সবার মন কেড়ে নিয়েছেন তিনি খুব দ্রুত। সে যেন নিজেই নিজের তুলনা। ভক্ত ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের কাছে সে একজন সফল মাল্টিটাস্কার। যাদু, চিত্রশিল্প, বায়োলজিকাল এনালাইসিস, অভিনয় কিংবা ব্লগিং কোনটাকেই এড়িয়ে যাওয়া যাবে না, সবকিছুই যেন হৃদয়স্পর্শ করে নেয়।এমনকি তিনি বাঁশি বাজাতেও সক্ষম । মানুষ হিসেবেও কিন্তু তিনি দূর্দান্ত।সর্বদা হাসিমুখে থাকা এবং বন্ধু হিসেবে সবাইকে কাছে টেনে নেওয়া তার অন্যতম গুন । এই ক্ষুদ্র মানুষটার হিংসে বলতে যেন কিছু নেই। মানুষের কৃতিত্ব ও অবদান মেনে নিতে তিনি সর্বদা প্রস্তুত ! ‘থিন্ক ইন ম্যাজিক’ ছিল তার বহুল আলোচিত ও জনপ্রিয় টিভি শো, বিটভিতে ও অনান্য চ্যানেলে তার ম্যাজিক সরাসরি সম্প্রচারিত হয়েছে, এছাড়াও ইউটিউব ও ফেইসবুকেও সে তার ভিডিও ও ব্লগিং এর জন্য ব্যাপক খ্যাতি পেয়েছেন ! এই বয়সে প্রায় ৫০০ + ম্যাজিকাল শো করেছেন তিনি সফলভাবে।দেশের বাইরে ভারত , নেপাল এবং ভুটানেও তিনি ম্যাজিক প্রদর্শন করে সাড়া ফেলতে সক্ষম হয়েছেন ।এছাড়াও তিনি বর্তমানে সামাজিক ও স্বাস্থ্যবিষয়ক সমস্যা নিয়ন্ত্রণে গবেষণা করে যাচ্ছেন।তাছাড়া তার প্রতিষ্ঠিত ‘রাজু চ্যারিট্যাবল ট্রাস্ট’ এদেশের তরুণদের মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে নিরলসভাবে। সাম্প্রতি অনুজীব বিজ্ঞানী রাজু “করোনা” ভাইরাস নিয়ে একটি আর্টিকেল সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন যা ব্যাপক সাড়া পায় ও সমাদৃত হয়।

ব্যাক্তিজীবনে সে মা প্রিয় মানুষ। চিত্রশিল্পে এস এম সুলতান,ভিন্সেন্ট ভ্যানগগ,রাম কিংকর বেইজমেন্ট তার আদর্শ।বাঁশিতে সে রাশিকা শেকর দ্বারা অনুপ্রানিত এবং ম্যাজিকে শুধুমাত্র এক এবং একমাত্র ডেভিড ব্লেইন হচ্ছেন তার অনুপ্রেরণা ।মজার ব্যাপার হচ্ছে বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খানের তিনি অন্ধভক্ত। আমাদের ম্যাজিশিয়ান রাজুকে একটা প্রেস কনফারেন্সে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, যদি শাহরুখ খানের সাথে দেখা হয় তবে কি করবেন? তার সহজ সরল উত্তর ছিল,” ম্যাজিক দেখাবো ” আমাদের দার্শনিক ম্যাজিশিয়ান রাজু বলেন, ” প্রতিটি মানুষই এক একজন ম্যাজিশিয়ান ” (Every individual human being is a magician) হিংসা, বিদ্বেষ, রাহাজানি দিয়ে যখন দেশ পরিপূর্ণ তখন যেন হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা হিসেবে সে এসেছেন আমাদের মাঝে। এমন এক গুনিজনকে শ্রদ্ধা ও সম্মান দেয়া ছাড়া আমাদের হাতে যেন কিছুই নেই। তবে অভিমানি হয়ে যেন আমাদেরকে ছেড়ে না যান তার খেয়াল রাখতে হবে। মনে রাখবেন একজন ভালো আর্টিস্ট পাওয়া খুবই সহজ, ভালো মানুষ ও ভালো আর্টিস্ট একসাথে পাওয়া দুষ্কর